সাহিত্য পত্রিকা-ই বলা যেতে পারে...

সম্পাদকীয়

ঘুরে ফিরে সেই অস্তিত্ত্বের সংকট! থিতু হতে দ্যায় না আমাদের। বৃষ্টিসহজিয়ায় লেগে থাকে অসাহিত্যের দিওয়ানাপন। প্রেমিকা বলে, 'তোমার খুব ইগো!' আমি বলি, 'কোনও সাহিত্য-ই চাঁদের ভঙ্গিমা-কে নকল করতে পারে না। চাঁদের দিকে আঙুল-ই করতে পারে কেবল!'

                           পারিবারিক ব্যবসা ছিল বীরভূমে। সব কিছু উঠিয়ে চলে আসা হয়েছে। এখন দিবারাত্রি কীসের যেন এক খোঁজ। আদালতহীনতা। প্রত্যহযাপন ও মানুষের সংগ্রাম থেকে সমদূরত্বে রাখা দাড়িপাল্লা। আকরগ্রন্থহীন এক সন্ধ্যাবেলায়। আলোচনারহিত ও সঙ্গীতমুখর।

                            ও তাই এই আশা সর্বত্র যে, কিছু পাঠক জুটে যাবে আমাদের! বিভিন্নতাগামী ট্রেন কামরায়। আড়িয়াদহ থেকে, প্রকাশ বাড়িয়ে দেবে তার, বন্ধুত্বপূর্ণ হাত!

 

চিঠি পেতে গেলে...